চট্টগ্রাম

পোস্টার কুড়িয়ে ‘লেখার খাতা’ বানাচ্ছে বিদ্যানন্দ

(Last Updated On: জানুয়ারি ২৯, ২০২১)

একসময় যে পোস্টার ছেঁড়া নিয়ে তুলকালাম হতো, সেই পোস্টার গাড়ির সঙ্গে লেগে ছিঁড়ছে, কুয়াশায় ভিজে ঝরছে। নোংরা করছে সড়ক, অলিগলি, ফুটপাত।তৈরি হচ্ছে টনে টনে আবর্জনা। আর সেই বর্জ্যকে সম্পদে পরিণত করছেন বিদ্যানন্দের স্বেচ্ছাসেবকরা। পোস্টার কুড়িয়ে গরিব, অসহায় শিশুদের ‘লেখার খাতা’ তৈরির কাজ শুরু করেছেন তারা।

বিদ্যানন্দের ইউনিফর্ম পরা একদল স্বেচ্ছাসেবককে নগরের বিভিন্ন স্থানে দেখা গেছে পোস্টার কুড়িয়ে গাড়িতে তুলতে।  

বিদ্যানন্দের সমন্বয়কারী সালমান খান ইয়াসিন জানান, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে পরিত্যক্ত হওয়া পোস্টারগুলো সংগ্রহে দুই দিনের কর্মসূচির প্রথম দিনে বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) সকাল আটটা থেকে পাহাড়তলী, জামালখান, চেরাগিপাহাড়সহ বিভিন্ন স্পটে পোস্টার সংগ্রহ করছি আমরা। দুইটি গাড়িতে ২০ জন স্বেচ্ছাসেবক দায়িত্ব পালন করছেন। আশাকরি, রাতে গাড়ি চলাচল কমে গেলে আমরা বেশি বেশি পোস্টার সংগ্রহ করতে পারব আশাকরি।  

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের পর যে পোস্টার আমরা সংগ্রহ করেছিলাম তা দিয়ে ২০ হাজার লেখার খাতা বানানো সম্ভব হয়েছিল। যে খাতাগুলো বিদ্যানন্দের অনাথালয়ের শিশুসহ পথশিশুদের পড়াশোনার কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে।

এবার চসিক নির্বাচন অংশগ্রহণকারী প্রায় সব প্রার্থী পোস্টার ছাপালেও ব্যতিক্রমী নির্বাচন করেছেন ২১ নম্বর জামালখান ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী শৈবাল দাশ সুমন। তিনি পরিবেশ সুরক্ষায় পোস্টার না ছাপিয়ে এ খাতের টাকা ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীদের দেওয়ার ঘোষণা দেন।