জাতীয়

‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ টিকটক ফারজানা গ্রেপ্তার

(Last Updated On: জুলাই ৩১, ২০২১)

সামাজিক মাধ্যমে টিকটক সেলিব্রেটির আড়ালে অপরাধের সামাজ্য গড়ে তুলেছিলেন ফারজানা বেগম (২৭) ওরফে টিকটক ফারজানা। চট্টগ্রাম নগরীর ইপিজেড থেকে আন্দরকিল্লা পর্যন্ত আধিপত্য রয়েছে তার। তবে নগর পুলিশের খাতায় ফারজানা একজন দুর্ধর্ষ ছিনতাইকারী। তার নামে পুলিশের খাতায় আছে আটটি মামলা। অবশেষে শুক্রবার মধ্যরাতে নগরীর ডবলমুরিং থানা পুলিশের অভিযানে আগ্রাবাদ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার হয়েছেন টিকটক ফারজানা।

এর মাত্র দুইদিন আগে এলজি ও ছুরিসহ গ্রেপ্তার হয়েছিলেন ফারজানার স্বামী রুবেল। তার বিরুদ্ধেও বিভিন্ন থানায় ১১টি মামলা রয়েছে। তারা স্বামী-স্ত্রী মিলেই গড়ে তুলেছিল ছিনতাই চক্র।

পুলিশ জানায়, ফারজানার ছিনতাইয়ের বিভিন্ন কৌশল রয়েছে। এর মধ্যে- একা চলাচলরত কোনো ছেলেকে প্রথমে টার্গেট করে সে। এরপর ঠিকানা জিজ্ঞাসা করার নামে তাকে থামায়। থামলেই ছুরি দেখিয়ে তার কাছে থাকা টাকা ও মোবাইল দিয়ে দিতে বলে, অন্যথায় তার বিরুদ্ধে ইভটিজিং ও যৌন হয়রানির অভিযোগ আনার হুমকি দেয়। এতে ভয়ে সবকিছু দিয়ে দেয় ছেলেরা। আর মেয়েদেরও ঠিকানা জিজ্ঞাসা করার ভান করে থামায়। এরপর ছুরি বের করে ভয় দেখিয়ে সব ছিনিয়ে নেয়।

ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, ফারজানা টিকটক ও লাইকি করে। টিকটক লাইকিতে ফারজানা নাকি সেলিব্রেটি। কিন্তু আমাদের কাছে সে একজন মোস্ট ওয়ান্টেড ক্রিমিনাল। দুর্ধর্ষ একজন ছিনতাইকারী। কিশোরদের নিয়ে তার নিজস্ব একটি ছিনতাইকারী দলও আছে। সে ছেলে ও মেয়েদের কাছ থেকে আলাদা কৌশলে ছিনতাই করে।

গত ১৯ জুলাই কোতোয়ালী থানার আন্দরকিল্লা মোড়ে একটি ছিনতাইয়ের ঘটনায় রুবেলের সঙ্গে তার স্ত্রী ফারজানাও জড়িত ছিলেন বলে জানা গেছে।