বিনোদন

‘অন্য কিছু হলেও মানতাম, তা বলে বিজেপি!’

(Last Updated On: ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২১)

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা ভোটের আগে স্থানীয় সিনে ইন্ডাস্ট্রির রাজনৈতিক সমীকরণ ক্রমাগত বদলাচ্ছে। একদা তৃণমূল ঘনিষ্ঠ অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ সম্প্রতি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর গুঞ্জন আরও জোরালো হচ্ছে। উঠে এসেছে কয়েকটি নাম।

রাজ্যের শাসকদল ও বিরোধী দল থেকে ক্রমাগত টলিউডের একাধিক তারকার কাছে দলে যোগ দেওয়ার প্রস্তাব গিয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে। রটনা বনাম ঘটনার দ্বন্দ্বে সিনেপাড়া আপাতত জমজমাট।

স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, রুদ্রনীলের পর এই পালা বদলের রাজনীতিতে শোনা যাচ্ছিল তার ঘনিষ্ঠ বন্ধু কাঞ্চন মল্লিকের নাম। তিনি কি বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন?

“অন্য কিছু হলেও মানতাম। তা বলে বিজেপি! আমার কোনো লোভ নেই। অভিনেতা হিসেবে বেশ ভালো আছি,” বললেন কাঞ্চন।

গেরুয়া শিবির থেকে তার কাছে কোনোরকম অফার নেই জানিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি কাঞ্চনের বক্তব্য, “আমার তো মনে হয় উত্তম কুমার বা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় আজ জীবিত থাকলে রাজনীতির কারবারিরা হয়তো এদেরকেও ছাড়ত না।”

কাঞ্চন নিজেকে একজন শিল্পী হিসেবেই দেখতে পছন্দ করেন। তাই তার মতে, “আমি কোনো নির্দিষ্ট দলের সমর্থক হতেই পারি। কিন্তু তাদের সঙ্গে মতানৈক্য হয়েছে বলে অন্য দলে যাওয়ার অর্থ তো সেখানে সুবিধাবাদের ইঙ্গিত। অনুপ কুমার ও বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়ও একসময় ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন। কিন্তু তারা তো পরে দল বদল করেননি।”

পশ্চিমবঙ্গের শাসকদল তৃণমূলের হেভিওয়েট তারকাদের তুলনায় বিজেপি শিবিরে যে সেলিব্রিটি মুখের অভাব, তা স্পষ্ট। তাই ইন্ডাস্ট্রির গুঞ্জন গেরুয়া শিবিরের তরফে অফার গেছে জিতের কাছেও। কিন্তু এই প্রসঙ্গে জিৎ কোনো বক্তব্য দিতে নারাজ। ওঠে আসছে পরিচালক অরিন্দম শীলের কথাও। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে সেই গুজবকে নস্যাৎ করে দিয়েছেন।