জাতীয়

অ্যাম্বুলেন্সে এসে ভোট দিলেন ভোটার

(Last Updated On: জানুয়ারি ১৬, ২০২১)

হুইল চেয়ার বা মানুষের কোলে করে এসে ভোট দিতে দেখা গেছে অহরহ। কিন্তু এবার দাগনভূঞা পৌরসভা নির্বাচনে দেখা গেল এক ভিন্ন চিত্র। ১নং আলাইয়াপুর কেন্দ্রে মো. ইব্রাহিম নামে এক ভোটার অ্যাম্বুলেন্সে করে এসে ভোট দেন। তিনি ঢাকার একটি হাসপাতাল ভর্তি ছিলেন। সরাসরি ঢাকা থেকে থেকে এসে দুপুরে ভোট দেন। ভোট শেষে আবার একই বাহনে ঢাকাতে হাসপাতালে ফিরে যান।

তিনি ১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী। পরবর্তীতে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে তার ভাই মাটি জাকিরের গাজর মার্কাকে সমর্থন দিয়েছে।

ইব্রাহিম জানায়, তার ভাই কাউন্সিলর প্রার্থী জাকিরের গাজর মার্কা ও নৌকাতে ভোট দেয়ার জন্য অসুস্থ অবস্থায়ও তিনি ঢাকা থেকে চলে আসেন।

আলাইয়াপুর কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার খিজ্জির আহমেদ জানান, ইব্রাহিমকে স্ট্রেচারে করে ভোট কক্ষে নিয়ে আসা হলে ভোট কক্ষে দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিদের সহযোগিতায় তিনি ভোট দেন।

সকাল ৮টা থেকে শুরু হয় দাগনভূঞা পৌরসভার ভোটগ্রহণ। চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। প্রথমবারের মত ইভিএম মেশিনে ভোট দিয়েছেন ভোটাররা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এবার এ পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ২৪ হাজার ৭৬৫টি জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১২ হাজার ২২০জন এবং নারী ভোটার ১২ হাজার ৫৪৫ জন। ১৩টি কেন্দ্রে ১৩জন প্রিজাইডিং কর্মকর্তা, ৭৮জন সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তা এবং ১৪৬জন পোলিং অফিসার ভোটগ্রহণ কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। প্রতি কেন্দ্রে ৮জন পুলিশ সদস্য ও ৯জন আনসার সদস্য নিয়োজিত রয়েছেন।

৯টি সাধারণ ওয়ার্ডের মধ্যে ৪টি ও ৩টি সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডের সবকটিতে বিনাপ্রতিদ্বন্ধীতায় একক প্রার্থী হওয়ায় ৩ নং ওয়ার্ডে নুরুল হুদা সেলিম, ৫ নং ওয়ার্ড একরামুল হক পাটোয়ারী ও ৬ নং ওয়ার্ড থেকে মোহাম্মদ হানিফ এবং ৯ নং ওয়ার্ড মোহাম্মদ ফারুক নির্বাচিত হন।