আন্তর্জাতিক

মিয়ানমারে এবার বন্ধ হলো টুইটার ও ইনস্টাগ্রাম

(Last Updated On: ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২১)

ক্ষমতা দখলের পরপরই মিয়ানমারের সামরিক জান্তা প্রতিরোধ ঠেকাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক নিষিদ্ধ করেছিল স্থিতিশীলতা নিশ্চিতের নামে। মার্কিন সম্প্রচারমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, এবার মাইক্রোব্লগিং ওয়েবসাইট টুইটার এবং ছবি ও ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইনস্টাগ্রামের পরিষেবাগুলো বন্ধ করে দিয়েছে তারা।

এর আগে সামরিক অভ্যুত্থানের পর মিয়ানমারের যোগাযোগ ও তথ্য মন্ত্রণালয় আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ফেসবুক বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে। দেশটিতে অন্তত আড়াই কোটি মানুষ ফেসবুক ব্যবহার করে। এবার দেশটির অন্যতম প্রধান ইন্টারনেট সরবরাহকারী টেলিনর নিশ্চিত করেছেন যে, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত টুইটার ও ইনস্টাগ্রামও বন্ধ থাকবে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি ভোরে মিয়ানমারের ক্ষমতা দখল করে দেশটির সেনাবাহিনী। এদিন অভিযান চালিয়ে রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চি এবং ক্ষমতাসীন দলের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের আটক করা হয়। রাজধানী নেপিডো ও প্রধান শহর ইয়াঙ্গুনের রাস্তায় রাস্তায় টহল দিতে শুরু করে সামরিক বাহিনীর সদস্যরা। দেশজুড়ে ঘোষণা করা হয় এক বছরের জরুরি অবস্থা।

অপরদিকে সেনা অভ্যুত্থানের প্রতিবাদে মিয়ানমারে অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন সু চি সমর্থকরা। এতে শামিল হয়েছেন বিভিন্ন পেশার মানুষ।