জাতীয়

রাতভর শিক্ষার্থীদের আন্দোলন, আশ্বাসের পর প্রত্যাহার

(Last Updated On: জানুয়ারি ৫, ২০২১)

পরীক্ষা নেওয়া, ফলাফল প্রকাশসহ ৮ দফা দাবিতে টানা ২০ ঘণ্টা আন্দোলন করেছে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) শিক্ষার্থীরা। সোমবার (৪ জানুয়ারি) রাতভর চলে সেই আন্দোলন। মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) সকালে প্রশাসনের আশ্বাসে সেই আন্দোলন প্রত্যাহার করেন শিক্ষার্থীরা।

এদিকে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলার মধ্যেই চাপের মুখে মঙ্গলবার ভোরে আন্দোলনরত ইংরেজি বিভাগের ২০১২-১৩ সেশনের শিক্ষার্থীদের ফলাফল প্রকাশ করেছে বেরোবি কর্তৃপক্ষ।

এর আগে শিক্ষার্থীরা সোমবার (৪ জানুয়ারি) সকাল ১১টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের হেয়াত মাহমুদ ভবনের মূল ফটকে তালা দিয়ে এ কর্মসূচি পালন শুরু করে।

একই দাবিতে গত ২৯ ডিসেম্বর আন্দোলনে নামলে এক সপ্তাহে পরীক্ষা নেওয়ার উপাচার্যের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে আন্দোলন তুলে নেয় তারা। কিন্তু এক সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও কোনো কার্যকর পদক্ষেপ না নেওয়ায় সোমবার (৪ জানুয়ারি) আন্দোলনে নামেন তারা।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১২-১৩ সেশনের শিক্ষার্থী। দীর্ঘ প্রায় আট বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো মাস্টার্স শেষ করতে পারিনি। সরকারি চাকরির বয়স প্রায় শেষের দিকে। আমাদেরকে বারবার আশ্বাস দেওয়ার পরেও কোন কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না। তাই বাধ্য হয়ে আন্দোলনে নেমেছি।

শিক্ষার্থীরা আরো জানান, আমাদের জুনিয়র ব্যাচের শিক্ষার্থীরা অন্যান্য বিভাগে পড়াশুনা শেষ করে চাকরি করছে কিন্তু আমরা এখনো পড়াশোনাই শেষ করতে পারলাম না।

সোমবার সকালে শুরু হওয়া অবস্থান কর্মসূচিতে বিভাগের কোন শিক্ষক উপস্থিত না হওয়া বা কোন আশ্বাস না পাওয়ায় দিনভর অবস্থান চালিয়ে যান তারা। সন্ধ্যা শেষ হয়ে রাত ১২টা পেরিয়ে গেলেও কোনো কার্যকর পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে। ফলে শীতের কনকনে ঠান্ডায় শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালিয়েছে সারারাত।

এদিকে আন্দোলনকারীদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ছাত্রী থাকায় তারা নিরাপত্তাহীনতার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।